মানুষকে মানুষ হিসেবে গড়ে তোলা একটি বড় চ্যালেঞ্জ -মাওলানা মিজানুর রহমান আজহারী


আজ ৮ ডিসেম্বর ২০২১ বুয়েট ছাত্র আবরার ফাহাদের খুনের সাথে জড়িতদের রায় প্রদান করা হয়। এ রায়ের প্রতি ইঙ্গিত করে জনপ্রিয় ইসলামিক বক্তা মাওলানা মিজানুর রহমান আজহারী তার ভেরিফাই  ফেইসবুক পেইজে একটি চমৎকার লেখা পোস্ট করেন। 

নিম্নে তা হুবহু তুলে ধরা হলো -

মানুষকে মানুষ হিসেবে গড়ে তোলা একটি বড় চ্যালেঞ্জ

-মাওলানা মিজানুর রহমান আজহারী

মানুষকে মানুষ হিসেবে গড়ে তোলা একটি চ্যালেঞ্জিং কাজ। যথাযথ শিক্ষা, নৈতিক মূল্যবোধ ও সঠিক পরিচর্যা পেলে মানুষ মূল্যবান সম্পদে পরিণত হয়। জনসংখ্যা হয় জনশক্তি। রুপান্তরিত হয় মানব সম্পদে। আর যথাযথ শিক্ষা ও পরিচর্যার অভাবে এই মানুষগুলোই হয়ে ওঠে সমাজের বোঝা, উশৃঙ্খল, দুরাচারী, হিংস্র, নৃশংস এবং পাশবিক প্রকৃতির।

ইসলামের ছোঁয়া পেয়ে আজ বাংলাদেশে অনেক তরুণ-তরুণী সময়মতো সালাত আদায় করে, হারাম রিলেশনশিপ বাদ দিয়ে বৈধ বিয়ের পথ খুঁজে, হালাল উপার্জনের চেষ্টা করে এবং সুন্দর সমাজ গড়ার স্বপ্ন দেখে। আর এই ছেলেগুলোই হেরার আলোর এ জ্যোতির্ময় ছোঁয়া না পেলে – কিশোর গ্যাঙ তৈরী, চাঁদাবাজি, মাস্তানি ইত্যাদি করে বেড়াতো। তারমানে, আদতে কোন মানুষই খারাপ নয়। যথাযথ পরিচর্যা ও দিকনির্দেশণার অভাব।

যেমন ধরুন, আবরার ফাহাদ যেমন মেধাবী ছাত্র ছিল, তেমনিভাবে ফাঁ/সি ও যাবজ্জীবন কারাদন্ড প্রাপ্ত ২৫ জন আসামিও আবরারের মতই মেধাবী ছিল। এতো মেধাবী হওয়া সত্যেও নৈতিকতা ও মানবিক মূল্যবোধের অভাবে তাদের মতোই আরেকজন শিক্ষার্থীকে পিটিয়ে হত্যা করতে তাদের বুক কাঁপেনি। তাদের বাবামায়েরা হয়তো কখনো বুঝতেই পারেনি যে তাদের সন্তান এরকম একজন খুনী সত্তা হয়ে বেড়ে উঠছে।

তাই, জনসংখ্যাকে মানব সম্পদে রুপান্তর করতে, অভিবাবক, শিক্ষকমণ্ডলী এবং সরকার— সবাইকে নতুন করে ভাবতে হবে। দেশে প্রায় ৩ কোটি তরুন-তরুণী। মানবিক মূল্যবোধ ও নৈতিক শিক্ষায় উজ্জীবিত করতে না পারলে, তরুণ প্রজন্ম এভাবে নানা বিধ্বংসী কর্মকান্ডে জড়িয়ে পড়বে। নষ্ট করবে তাদের উজ্জ্বল ভবিষ্যত। বারবার পিছিয়ে পড়বে আগামীর বাংলাদেশ।

Mohammad Abdur Rahim
Mohammad Abdur Rahim

কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভদ্রোচিত কমেন্ট করুন। অসৌজন্যতা এড়িয়ে চলুন। ধন্যবাদ।